August 4, 2020, 10:25 pm

স্বচ্ছ কাচের জানালা

———–তূর্বা খান জানালার ওপাশে তুমি, এপাশে আমি;তোমাকে দেখি পলকহীন মুগ্ধতা নিয়ে,কবিতার ছলে অজস্রবার পাঠাই প্রেমগানে গানে শুনাই হৃদয়ের যত কথা;জানালার ওপাশ থেকে তুমি কেবল হাসো। বৃষ্টি ছুঁয়ার ছলে হাত বাড়িয়ে দেই-কেবল তোমাকে স্পর্শ করবো বলে;বাতাসের কানে কানে চিঠি পাঠাই-সূর্যের কিরণ হয়ে জড়িয়ে ধরি তোমাকে।জানালার ওপাশ থেকে তুমি কেবল হাসো। এক জীবনের তৃষ্ণায় ভালোবাসি তোমাকে,চিৎকার করে বিস্তারিত

কষ্টের কবিতা

…………….মৃণাল চৌধুরী সৈকত আজ এই পৃথিবীটা নীরবসব যেন রয়েছে চুপচাপ,কেবল বাতাস পাতায় পাতায়বিলাপ করে যাচ্ছে অবিরত,আর একজন কিশোর কবিতার হৃদয়ের সমস্ত বেদনার বানীএকের পর এক লিখে যাচ্ছেকোন এক কষ্টের কবিতায়।গভীর রাতে পড়ার টেবিলে বসেকবি, একের পর এক লিখে যাচ্ছে,আমার এ হৃদয় আজ-হৃদয়ের কাছে আর্তচিৎকার করে বলছে,সবাই ঘুমিয়ে থাক-শুধু জেগে থাকবো আমি।আমি জেগে থেকে দেখে যাবোপুর্ণিমার বিস্তারিত

🌧🌧তোর চোখের কাজলে 🌧🌧

🍂🍂 সাম্য 🍂🍂 পারু…পারু…পারু…..নিঃশ্বাস টা আর ধরে রখতে পারলাম না,এই বুঝি মহাকালের ডাকে—স্রোতের অনুকূলে যাচ্ছি হারিয়ে….। দেহত্যাগের পর….তুই আর, পরিত্যক্ত দেহের দিকে-ফিরে তাকাস্ নে।এমন কি শ্মশান ঘাটে,আগুনে জ্বলসে যাওয়া দেহের…ঊর্ধ্বমুখী ধোঁয়ার দিকে…..।।এতে তোর মর্ত্যের সুখ-শান্তি…..বিলাসিতা বিনষ্ট হতে পারে!বিশ্বাস কর তোর এমন টা,আমি চাই নে…পারু….পারু…..পারু…..আমি নেই তাতে কী! তুই রোজ,তোর চোখের কাজলে….নিজেকে সাজিয়ে রাখিস্যদি কখনো খুব বিস্তারিত

অস্পষ্ট স্মৃতি

———-শিখা গুহ রায়, ভারত কাছের মানুষ যখন আঘাত করে,খুব যন্ত্রণায় কষ্টে হৃদয় ভাঙে শব্দহীনঅন্তরে রক্তঝরে অবিরত,শুধু অনুরাগে অনুভবে। মানুষ যতটা যত্ন করে কষ্ট দেয়ঠিক ততটা যত্ন করে যদি ভালবাসতো,তবে ভালবাসার সম্পর্ক গুলোএতো ভেঙ্গে যেত না !! কাছের মানুষ বিশ্বাস ভাঙে–গড়ে স্বপ্নের পাহাড়,এক নিমেষেই ধূ ধূ বালুচর। দুশ্চিন্তার মুহুর্ত গুলোঅতল জলে তলিয়ে যায়হারিয়ে যায় বিক্ষিপ্ত যন্ত্রনার বিস্তারিত

সনেট নির্জন স্টেশনে একদিন

মৃণাল চৌধুরী সৈকত ইজ্জতপুর রেল স্টেশনটা এমনিতেই ছোট্রোতার উপর সন্ধ্যা নামলেই,রঙ্গিন কেরোসিনের বাতি জ্বলে সেখানটায়,চারপাশে সারি সারি আমলকির গাছআর প্লাটফর্মটায় নিঝুম অন্ধকার যেনএমনিতেই ঝুলে ঝুলে দোল খায়।অদুরে, হেমন্তের সাদাকুয়াশার ভিতর দিয়েআউটার সিগন্যালের লাল ঝলমলেআলো-আকাশ প্রদীপের মতো জ্বলছে ।মৃণাল টিকিট কাটতে গিয়ে জানলটঙ্গী যাওয়ার গাড়ী সন্ধ্যে সাতটা চল্লিশে,কিচ্ছু যায় আসে না মৃণালের।তারপর, টিকিট কেটে গাড়ীর অপেক্ষাপ্লাটফর্মটার বিস্তারিত

***একোন সকাল!***

*****সাম্য****** একোন সকাল–রাতের চেয়েও অন্ধকার,চোখের দৃষ্টিতেই-অবলা কিশোরী ধর্ষণের শিকার!(২)সমাজতন্ত্রের আহ্বান দিয়ে–ধনতন্ত্রের যে নীল নকশা আঁক,চিলেকোঠাতে বসে।আমি তার কিছুই জানিনা,কিছুই বুঝিনা —-এমন টা ভাবলে কি করে!(৩)বদমাইশ হারামখোরের সংখ্যা —যত বেশিই হউক,সৎপথের মানুষ গুলো হেরেছে কি—কোন কালে?খুলেদেখ ইতিহাস কি বলে!(৪)সু-বিচার না পেয়ে যে দেশের নির্যাতিতরা —কাঁদে নিভৃত অন্তরালে,হে বৈশাখ নিয়ে এসো—তোমার বুক সঞ্চিত ঈশান অভিশাপ।কাল বৈশাখী ঝড়,সুনামি,জলোচ্ছ্বাস—আঘাত বিস্তারিত

শান্তির ঘুম

শিখা গুহ রায় এখন আর আগের মতঘুমাতে পারিনা শান্তির ঘুম!হারিয়ে যেতে পারি না স্বপনীল মেলায়। পারি না আরকোন কিছুতে মন বসাতে,অস্থিরতা আর অনিশ্চিয়তায়গভীরতায় তলিয়ে গেছি আমি। এত উৎকন্ঠার পেছনেরপ্রশ্নটি হলো-কেন এমন হচ্ছে ?কি সেই কারন যা আমারস্বাভাবিক পথ চলাকে বিঘ্নিত করছে ? সেদিনের সেই মাতাল ঘ্রাণহাতের স্পর্শ মৃূদু স্পন্দনবুকের ভিতর ধুকপুক ধুকপুক তুফানমেল। আবারও উত্তাপ বিস্তারিত

নদীর রাহুগ্রাস

মৃণাল চৌধুরী সৈকত এ্যাইহানে,এ্যাইহানে বসতি ছিলো মানুষেরআজ আর কেউ নেইকেউ না,নদীর ভাঙ্গন দ্যাইখ্যা দ্যাইখ্যাদিশেহারা মানুষগুলো পালাইতে থাহেকেউ ওই পাড়ে,কেউ দিগ্বিদিগ।বুকের ভেতরটা খাঁ কইরা ওঠেচমকাইয়্যা ওঠে হারাধন,বুক ফাইট্যা কান্না আইতে চায়,বুকে পাথর বাঁধে, কষ্টের পাথর।নদীর ভাঙ্গন দ্যাইখ্যা দ্যাইখ্যাবুঝি, বাবলার কাঁটার মতোএকটা অজানা ভয়হারাধনের বুকে আইস্যা বিঁধে,কোন রাঁ নেই তার মুহে।দুমড়াইয়্যা মুচড়াইয়্যা হগল কিছুভাসাইয়্যা নেয় নদী,নদীর ঘোলা বিস্তারিত

আমার স্মৃতিমাখা হৃদকমল ভাসায় চোখের কোণ — ৮

—- দুর্গা বেরা (কোলকাতা, ভারত) এরা আমাকে অনেকেই চেনে, জানে আমার লেখা কবিতাকে। অনুষ্ঠানের ভীড়ে কেউ কেউ হাসি মুখে এগিয়ে এসে বলল-■ আপা আপনার “বাইশ বছর”(আমার বয়স বাইশ) কবিতা টা আমি অনেক বার শুনছি। বলি হয়ছি আমিটাও আমি অনেক বার শুনছি, শেয়ারও করসি।★ তাই! অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।■ ধইন‍্যবাদ আমাদের দ‍্যেন ক‍্যেন। ধইন‍্য হইছি আমরা। আমাদের বিস্তারিত

মাটি লেপে ঘর

———শিখা গুহ রায় নিজেকে ঠিক মেলাতে পারছিনাসেই আমি আর এই আমিনিজের ভিতর পরিবর্তন অমিমাংসীত,মেলাতে পারছি না কিছুতেই। তোমার রঙিন প্রজাপতিআর আমার একলা নীল আকাশ।অথচ অবধারিত সবকিছু!সমস্ত মেঘের গাল বেয়েআজ গড়িয়ে পড়ছে অশ্রুপ্রথম চুমুর ফোঁটা ফোঁটা বৃষ্টি …. ক্লন্তিহীন জীবন ছুটতে গিয়েরাত্রি গুঁড়িয়ে যায়চোখে জেগে থাকে অজস্র জল ফোঁটা,অবাক হয়ে থমকে দাঁড়াইখুজে পাই হৃদয়ের অদ্ভুত এক বিস্তারিত



© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com