ArabicBengaliEnglishHindi

কালিয়াকৈরে সবুজ আন্দোলনের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত,পরিবেশের জন্যই কাজ করে সবুজ আন্দোলন


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১, ২০২২, ৭:০০ অপরাহ্ন / ৬৭
কালিয়াকৈরে সবুজ আন্দোলনের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত,পরিবেশের জন্যই কাজ করে সবুজ আন্দোলন

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি ->>

পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ আন্দোলন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা শাখার উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। আজ (০১আগষ্ট) কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য এস এ এম সুমনের সভাপতিত্বে উক্ত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলন কালিয়াকৈর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ মফিজুল ইসলাম রায়হান।

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

সভাপতি তার বক্তব্য বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে সবুজ অরণ্য বাঁচাতে আন্দোলন করে আসছি। এক সময় কালিয়াকৈর উপজেলায় সবুজের অভয়ারণ্য ছিল। বর্তমান সময়ে সম্প্রসারণশীল অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ফলে যত্রতত্ত্ব শিল্প কলকারখানা গড়ে উঠেছে। যার ফলে সবুজায়নের পরিমাণ এখন নেই বললেই চলে। আমাদের সংগঠনটি শুরু থেকেই বৃক্ষরোপণের উপরে জোর দিয়ে আসছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজকে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হলো।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, ভূমি দস্যুদের ফলে সবুজয়ান ব্যাহত হচ্ছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে একটুও সবুজ অবশিষ্ট থাকবে না। যা আমরা হতে দিতে পারি না। এলাকার অধিকাংশ খাল ও নদী দখল দূষণের জর্জরিত। আগামীতে ব্যাপক ভাবে সবুজ আন্দোলনের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে। পরিবেশ বিপর্যয় রোধে জনসচেতনতা তৈরীর জন্য আমাদের সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে।

ওই এলাকার বৃদ্ধা কৃষক সেলিম উদ্দিন ও জামাল উদ্দিন বলেন, এই ছেলে গুলো ও তাদের সংগঠন দেশ, সমাজ ও পরিবেশ জন্য যে কাজ করছে তা দেখে আমরা খুব আনন্দিত। এদের মত আমাদের সকলকে পরিবেশের জন্য কাজ করা দরকার। জামাল উদ্দিন বলেন, আমরা এখন আর নদীতে ভাল পানি পাই না। নদীতে যে পানি এখন রয়েছে তার মধ্যে শুধু ক্যামিকেল রয়েছে। পানি কালো হয়ে গেছে। এ পানি আমরা জমিতে সেচ দিতে পারি না। ক্ষেতে এ পানি সেচ দিলে ফসল নষ্ট হয়ে যায়। আমরা আপনাদের ধন্যবাদ জানায়, আপনাদের এই ভাল উদ্যোগ সফল হোক।

পরে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন গাছের চারা রোপণ করা হয়। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের উপজেলা কর্মিটির সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম, মাহাবুব ইসমাল, জাহিদুল ইসলাম, সবুজ সরকারসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও এলাকাবাসী।