ArabicBengaliEnglishHindi

শেখ হাসিনার কর্মী ছিলেন-থাকবেন: সম্রাট


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৬, ২০২২, ৭:০৪ অপরাহ্ন / ৫১
শেখ হাসিনার কর্মী ছিলেন-থাকবেন: সম্রাট

নিজস্ব প্রতিবেদক ->>
জামিনে কারামুক্ত হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট। ছাড়া পেয়েই তিনি চলে যান ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান। পরে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, রাজনীতি নিয়ে আমার কোনো ভাবনা নেই, আমি সবসময় শেখ হাসিনার কর্মী ছিলাম, কর্মী হিসেবেই কাজ করে যাবো।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

 

যুবলীগ থেকে বহিষ্কৃত হলেও শত শত নেতাকর্মীর কাছে এখনও প্রিয় সম্রাট ভাই। নেতার মুক্তিতে তারাও নেতার সূরে সুর মিলিয়েছেন। একই সঙ্গে শ্লোগান দিয়েছেন। শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে কাজ করতে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

শুক্রবার (২৬ আগস্ট) বিকেল ৪টার দিকে সম্রাট ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে আসেন। তার আগে দুপুরে তিনি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান।

সম্রাটের হাসপাতাল ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের কার্ডিওলজিস্ট বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও ইউনিট প্রধান ডা. মো. রসুল আমিন। বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) জ্ঞাত আয়-বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় গ্রেফতার যুবলীগের এ বহিষ্কৃত নেতাকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়।

জানা গেছে, সম্রাট এখনও পুরোপুরি সুস্থ হননি। তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন।

এর আগে গত সোমবার (২২ আগস্ট) ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের জামিন মঞ্জুর করেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৬’র বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান। কিন্তু অসুস্থ থাকায় দুদিন পর হাসপাতাল ছাড়লেন তিনি।

জামিনের ক্ষেত্রে সম্রাটকে কয়েকটি শর্ত দেওয়া হয়। শর্তগুলো হলো- তার পাসপোর্ট আদালতে জমা দিতে হবে; আদালতের অনুমতি না নিয়ে তিনি বিদেশে যেতে পারবেন না।

সম্রাটের আইনজীবী আফরোজা শাহনাজ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, জ্ঞাত আয়-বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় জামিনের মধ্য দিয়ে সব মামলায় জামিন পেয়েছেন সম্রাট।