ArabicBengaliEnglishHindi

অদম্য সাহসী তরুণ উদ্যোক্তা ও সফল যুব সংগঠক আব্দুল মোমিন


প্রকাশের সময় : মে ১৬, ২০২২, ৪:৫৮ অপরাহ্ন / ৩০৩
অদম্য সাহসী তরুণ উদ্যোক্তা ও সফল যুব সংগঠক আব্দুল মোমিন

নীলফামারী প্রতিনিধি ->>

নীলফামারীতে অদম্য সাহসী তরুণ উদ্যোক্তা ও সফল যুব সংগঠকের আরেক নাম আব্দুল মোমিন।

সামাজিক দায়বদ্ধতায় দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, অগ্রগতি ও মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে তরুণেরা। এসব তরুণদের মধ্যে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশের উত্তর প্রান্তের নীলফামারীর সন্তান আব্দুল মোমিন।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত এই শ্লোগানকে ধারণ করে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, বাল্যবিবাহ, মাদক, যৌতুক প্রতিরোধ, নারী উন্নয়ন, পরিবেশ উন্নয়ন, স্বাস্থ্য সেবা, প্রতিভা বিকশিত সমাজব্যবস্থা, পাখি, পরিবেশ ও প্রকৃতি সুরক্ষা, শোষণ, দারিদ্র্য, দুর্নীতি মুক্ত, অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলার গঠনের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। তিনি স্বপ্ন দেখেন, যেখানে সব কিছুর উর্ধে মানুষ মানুষের জন্য নিবেদিত প্রাণ হয়ে থাকবে।

তার লালিত স্বপ্ন আর অদম্য ইচ্ছাশক্তি নিয়ে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যেমন সফলতার সাথে কাজ করেছে, তেমনি একজন তরুণ উদ্যোক্তা হিসেবেও নিজের জায়গা তৈরী করে নিয়েছে। তরুন এই উদ্যোক্তার হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান দ্বীপ্তমান গ্রুপ। শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, সাভারে ‘Small Business entrepreneurship development’ বিষয়ে এবং বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন নীলফামারীতে প্রশিক্ষণ নিয়ে গড়ে তুলেছেন দ্বীপ্তমান গ্রুপ। দ্বীপ্তমান গ্রুপে উৎপাদন হচ্ছে কলম, খাতা, জুতা ও স্যান্ডেল। উক্ত প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হয়েছে অনেক বেকার যুবকের। বাজারে রয়েছে দ্বীপ্তমান গ্রুপ এর পণ্যের ব্যাপক চাহিদা।

অদম্য এই তরুণ উদ্যোক্তা ও সফল যুব সংগঠক দ্বায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে দ্বীপ্তমান যুব উন্নয়ন সংস্থা এবং দ্বীপ্তমান মানবউন্নয়ন ও সমাজকল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে। এ সংগঠন সমগ্র জেলায় হাজারের বেশি স্বেচ্ছাসেবীদের নেতৃত্ব দিচ্ছে। জেলার তৃণমূল পর্যায়ের নারীদের স্বনির্ভর করার অংশ হিসেবে দেশের গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক অধিদপ্তরের সহযোগিতায় ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে। বাল্যবিবাহ, যৌতুক ও ইভটিজিং প্রতিরোধে আলোচনা সভার মাধ্যমে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সফল ভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করেছে। বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে অর্ধশতাধিক। কারগরি ও আর্থিক ভাবে আইনি সহায়তা প্রদান করে যাচ্ছে নির্যাতিত অসহায় নারীদের।

শব্দ দূষণ রোধে যখন সবাই নিরব ভূমিকায় তখন এই তরুণ উদ্যোক্তা ও যুব সংগঠক আব্দুল মোমিনের নেতৃত্বে পরিবেশ রক্ষায় শব্দ দূষণ রোধে আন্দোলনের কর্মসূচি জেলা ও উপজেলায় পালিত হচ্ছে। শব্দ দূষণের ক্ষতিকর প্রভাব ও আমাদের করনীয় বিষয়ে আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরণ ও শব্দ দূষণ রোধে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মানববন্ধনের মাধ্যমে যুবকদের নিয়ে শব্দ দূষণ রোধে আইন বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বন্যপ্রাণী রক্ষায় সচেতনতা বৃদ্ধি, ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে চারা ও বীজ বিতরণ এবং আলোচনা সভার মাধ্যমে জেলায় বৃক্ষ রোপনের ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করেছে।

এই অদম্য তরুণ উদ্যোক্তা ও সফল যুব সংগঠকের নেতৃত্বে মানববন্ধন, লিফলেট বিতরণ, প্রচারণা এবং জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাদকবিরোধী আলোচনা সভা হয়েছে। শতাধিক তরুন ও যুবক সচেতনতা বৃদ্ধির ফলে মাদকদ্রব্য পরিহার করে সুস্থ্য ও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে। ক্রীড়া প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে কাজ করে যাচ্ছে। মাদক প্রতিরোধে সামনের কাতারে থেকে প্রতিহত করে চলেছে প্রতিনিয়ত।
সারাদেশের ন্যায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী আলোচনা সভার মাধ্যমে জেলায় সচেতনতা বৃদ্ধি করেছে।

অর্থের অভাবে চিকিৎসা করতে পারে নাই এমন অর্ধশতাধিক অসহায় রোগীদের আর্থিক সহযোগিতা করেছে। করোনায় জেলার বিভিন্ন স্থানে ৫ হাজার সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরন ও জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করেছে। শিক্ষা ক্ষেত্রে রয়েছে নানামুখী অবদান, স্কুল ও কলেজে ভর্তির জন্য আর্থিক সহযোগিতা, ঝড়ে পড়া শিক্ষার্থীদের স্কুলে ভর্তির ব্যবস্থা, ফরম ফিলাপের আর্থিক সহায়তা করে যাচ্ছে।

সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচির আওতায় বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহযোগীতার মাধ্যমে অনেক অসহায় ব্যক্তিদের ভাতার ব্যবস্থা করেছে। ক্যান্সার, কিডনি, লিভার, জন্মগত হৃদরোগ রোগীদের করেছে সহযোগিতা।

তরুন এই উদ্যোক্তা ও যুব সংগঠক
জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে প্রতিভা বিকশিত সমাজ গঠনে কাজ করে যাচ্ছে।
উন্নয়ন মেলায় অংশগ্রহণ, জাতীয় সমাজসেবা দিবস, আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস, জাতীয় যুব দিবস, বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস, মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে স্বাধীনতা অম্লানে শ্রদাঞ্জলি অর্পণ করে থাকেন। শীতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়াদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ, করোনায় ভ্যাকসিন নেওয়ার ক্ষেত্রে সচেতনতা, এতিম শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন করেছে। জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে বেকার যুবকদের গরু মোটাতাজা করন ও হাঁস-মুরগি প্রশিক্ষণ সহ কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কাজ করে যাচ্ছে সফলতার সাথে। অদম্য এই সফল তরুন উদ্যোক্তা ও যুব সংগঠকের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে রয়েছে বহুমুখী অবদান। অর্ধশতাধিক বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান এবং ২০ হাজারেরও বেশি অসহায় ও অবহেলিত জনগোষ্ঠীর পাশে দাড়িয়ে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

এছাড়াও তিনি নির্বাহী পরিচালক দ্বীপ্তমান নারী কল্যান সংস্থা, সম্পাদক ও প্রকাশক দ্বীপ্তমান বাংলাদেশ, সভাপতি কাঞ্চনপাড়া ফল ফসল কৃষক গ্রুপ, কার্যনির্বাহী সদস্য বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, সদস্য নীলফামারী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, জেলা এনজিও ফোরাম, এডাব, জাতীয় যুব কাউন্সিল,সেচ্ছাসেবী মাদক বিরোধী কমিটি সদর উপজেলা ও নীলফামারী জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির ধর্ম ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হিসাবে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দ্বায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

শান্তির পথে তরুণদের অংশীদারিত্ব বাড়াতে অগ্রগতির মশাল হাতে তরুণদের প্রতিনিধি হয়ে মানবতার কল্যাণে আমৃত্যু কাজ করে যাওয়ার প্রত্যয় নিয়ে গড়তে চান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত আগামীর সোনার বাংলা। তার এই কাজে সহযোগিতা এবং সবসময় পাশে যারা প্রেরণা যুগিয়েছেন, তাদের সবার প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।