ArabicBengaliEnglishHindi

গ্রামীণ টেলিকমের অর্থ আত্মসাৎ: দুদকের অনুসন্ধান দল গঠন


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১, ২০২২, ৭:৫৭ অপরাহ্ন / ৫৪
গ্রামীণ টেলিকমের অর্থ আত্মসাৎ: দুদকের অনুসন্ধান দল গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক ->>
গ্রামীণ টেলিকম লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধানে তিন সদস্যের দল গঠন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

সোমবার (১ আগস্ট) গঠন করা এ অনুসন্ধান দলের প্রধান দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান। সংস্থাটির সহকারী পরিচালক জেসমিন আক্তার ও নূরে আলমকে সদস্য করা হয়েছে। দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনকে তদারককারী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

দুদক জানিয়েছে, গ্রামীণ টেলিকম লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠানের তহবিল থেকে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগ আছে। তার মধ্যে আছে শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে বণ্টনের জন্য সংরক্ষিত লভ্যাংশের ৫ শতাংশ অর্থ লোপাট, শ্রমিক-কর্মচারীদের পাওনা পরিশোধকালে অবৈধভাবে অ্যাডভোকেট ফি ও অন্যান্য ফির নামে ৬ শতাংশ অর্থ কর্তন, শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলে বরাদ্দকৃত সুদসহ ৪৫ কোটি ৫২ লাখ ১৩ হাজার ৬৪৩ টাকা বিতরণ না করে আত্মসাৎ এবং কোম্পানি থেকে দুই হাজার ৯৭৭ কোটি টাকা পাচারের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরের মাধ্যমে আত্মসাতের অভিযোগ।

এর আগে গত ২৮ জুলাই গ্রামীণ টেলিকমের পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করার কথা জানান দুদকের সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

তিনি জানান, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের উপ-মহাপরিদর্শক গ্রামীণ টেলিকম কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগসম্বলিত একটি প্রতিবেদন দুদকে পাঠান। ওই প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুদক।