ArabicBengaliEnglishHindi

ডিমলায় নৌকার কারিগরদের জীবন কাটছে হতাশায়


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৭, ২০২২, ৭:১৩ অপরাহ্ন / ৭১
ডিমলায় নৌকার কারিগরদের জীবন কাটছে হতাশায়

নীলফামারী প্রতিনিধি ->>
নীলফামারীর ডিমলা তিস্তা চরাঞ্চলের নৌকা তৈরীর কারিগরদের হতাশায় জীবন কাটছে।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

 

সরেজমিনে তিস্তা তীরবর্তী চর কিসামত, ডালিয়া ব্যারাজ, চর খড়িবাড়ি, বাইশপুকুর, ভেন্ডাবাড়ি চরসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, হঠাত বন্যা, হঠাত খোরা হওয়ার কারনেই তিস্তা নদীর মাঝখানে ধু-ধু বালু চরের কারনেই নদী এপার ওপর পারাপারের সমস্য দেখা দেওয়ায় অনেকেই নৌকা কিনতে অনিচ্ছুক।

কিসামত চরের সহিদুল ইসলাম বলেন এবার নৌকা বিক্রি করতে না পারায় সাংসারিক ভাবে অনেক ক্ষতি হইয়াছে। ৩ টন ধারণ ক্ষমতার নৌকা মেরামতে সময়ে ১০-১৫ হাজার টাকা খরচ হয়। পুরোনো ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমরা প্রতিবছর নৌকা তৈরী করি। ছোট নৌকা তৈরিতে দুই থেকে চার এবং বড় নৌকা তৈরিতে ২৫ থেকে ৩০ দিন সময় লাগে।

নতুন নৌকা তৈরিতে বিশেষ করে আকাশমণি, মেহগনি, কড়াই, ছামালিশ গাছ বেশি ব্যবহার হয়। ছোট নৌকা তৈরিতে ১০-১২ হাজার এবং বড় নৌকা তৈরিতে ২৬-২৯ হাজার টাকা এবং পুরোনো নৌকা মেরামতে নৌকার আকার অনুযায়ী ৫-১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত মজুরি পাই।

ডিমলা উপজেলার খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম লিথন বলেন, চরাঞ্চলের বাসিন্দাদের একমাত্র ভরসা নৌকা। এবার নৌকা তৈরী করে চরের মানুষ শুকনো মৌসুমে দিশেহারা জীবন যাপন করছে।