ArabicBengaliEnglishHindi

ডেপুটি স্পিকারের সংসদীয় আসন শূন্য ঘোষণা করেছেন সংসদ সচিবালয়


প্রকাশের সময় : জুলাই ২৫, ২০২২, ১:৪৭ অপরাহ্ন / ৬৩
ডেপুটি স্পিকারের সংসদীয় আসন শূন্য ঘোষণা করেছেন সংসদ সচিবালয়

সোহানুর রহমান সোহাগ ->>
স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সংসদীয় আসন (সাঘাটা-ফুলছড়ি) গাইবান্ধা-৫ শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। আজ রোববার জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। কোনো সংসদীয় আসন শূন্য ঘোষণা করা হলে তা ৯০ দিনের মধ্যে উপ-নির্বাচনের কথা সংবিধানে বলা আছে। তবে যদি ৯০ দিনের মধ্যে করা না যায় তাহলে সময় বাড়ানোর সুযোগও আছে।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

 

গত ২২ জুলাই বাংলাদেশ সময় রাত ২টার দিকে নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে মারা যান ফজলে রাব্বি মিয়া। অনেকদিন যাবত টিউমারে আক্রান্ত ছিলেন তিনি পরে পরীক্ষা নিরিক্ষায় ক্যানসার ধরা পড়লে প্রথমে ভারত এবং পড়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে নেয়া হয়।

আগামীকাল সোমবার (২৫ জুলাই) সকালে তার মরদেহ ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে। ঢাকায় পৌঁছানোর পর প্রথম জানাজা হবে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে। সকাল সাড়ে ১০টায় জানাজা শেষে শ্রদ্ধার জন্য মরদেহ ঈদগাহ প্রাঙ্গণে রাখা হবে। করোনার কারণে ডেপুটি স্পিকারের জানাজা জাতীয় সংসদ ভবনে হবে না।জাতীয় ঈদগাহ প্রাঙ্গণে জানাজা শেষে দুপুরে হেলিকপ্টারে ফজলে রাব্বীর মরদেহ নেওয়া হবে গাইবান্ধার সাঘাটায়। ওইদিন বিকেল ৩টায় ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে গটিয়া গ্রামে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে আরেকটি জানাজা করে সন্ধ্যায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

ফজলে রাব্বী মিয়া ১৯৮৬ সালের তৃতীয়, ১৯৮৮ সালে চতুর্থ, ১৯৯১ সালের পঞ্চম ও ১৯৯৬ সালে ১২ জুন সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ আসন থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরাজিত হন। ২০০৮ সালে নবম, ২০১৪ সালে দশম ও ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ আসন থেকে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।