ArabicBengaliEnglishHindi

দিনাজপুর আদালতে ইউএনও হত্যা চেষ্টার মামলায় আসামীর ১০ বছরের কারাদণ্ড


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৮, ২০২২, ১০:২৬ অপরাহ্ন / ২৩৪
দিনাজপুর আদালতে ইউএনও হত্যা চেষ্টার মামলায় আসামীর ১০ বছরের কারাদণ্ড

আশরাফুল আলম, দিনাজপুর প্রতিনিধি ->>
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা বীরমুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখকে হত্যা চেষ্টার মামলায় একমাত্র আসামি রবিউল ইসলামকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডিত করেছেন বিজ্ঞ আদালত।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩ আদালতের বিচারক সাদিয়া সুলতানা এ রায় প্রদান করেন। সেই সাথে বিজ্ঞ বিচারক রবিউল ইসলামকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ প্রদান করেছেন।

রবিউল ইসলাম দিনাজপুরের বিরল উপজেলার বিজোড়া ইউনিয়নের বিজোড়া গ্রামের খতিব উদ্দীনের ছেলে এবং ঘোড়াঘাট ইউএনও’র বাসভবনের কর্মচারী ছিলেন।

দিনাজপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মেঃ রবিউল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২ সেপ্টেম্বর দিনগত রাত ২টার দিকে সরকারী ডাকবাংলাতে ঘোড়াঘাট ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলী শেখের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। ৩ সেপ্টেম্বর সকাল ৮ টায় তাদেরকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে দুপুর ১টায় হেলিকপ্টার যোগে জাতীয় নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। ৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ভাই শেখ ফরিদ বাদী হয়ে ঘোড়াঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা বেশ কয়েকজনকে আটক করে। ১১ সেপ্টেম্বর রাতে জেলার বিরল উপজেলার বিজোড়া ইউনিয়নের বিজোড়া গ্রামের খতিব উদ্দীনের ছেলে ও ঘোড়াঘাটের ইউএনও বাসভবনের সাবেক কর্মচারী রবিউল ইসলামকে আটক করা হয়। ২০ সেপ্টেম্বর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালত-৭ এর বিচারক ইসমাইল হোসেনের নিকট নিজের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করেন রবিউল ইসলাম। ২১ নভেম্বর দুপুরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমাম জাফর আদালতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে রবিউলের বিরুদ্ধে চার্জশীট প্রদান করেন।