ArabicBengaliEnglishHindi

নিপুণকে বিজয়ী ঘোষণা হাস্যকর ও আইন বহির্ভূত : জায়েদ খান


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ৫, ২০২২, ১১:৫৭ অপরাহ্ন / ১০৯
নিপুণকে বিজয়ী ঘোষণা হাস্যকর ও আইন বহির্ভূত : জায়েদ খান

নিজস্ব প্রতিবেদক ->>
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী নিপুণকে জয়ী ঘোষণার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন চিত্রনায়ক জায়েদ। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, নিপুণকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করার বিষয়টি হাস্যকর ও আইন বহির্ভূত।

গণমাধ্যমকে জায়েদ খান বলেন, ‘এখানে আপিল বোর্ডের কোনো মূল্য নেই। তারা এরকম কোনো সিদ্ধান্ত দিতে পারে না। এটা আইন বহির্ভূত, পৃথিবীতে এমন নজিরবিহীন ঘটনা নেই। প্রজ্ঞাপনের পর আপিল বোর্ড কীভাবে এ রায় ঘোষণা করে? আমি আইনি ব্যবস্থা নেব।’

এদিকে, বিজয়ী হওয়ার খবরে কেঁদে ফেলেন নিপুণ। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘আমি অনেক জায়গায় গিয়েছি, দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। পীরজাদা শহীদুল হারুনের কাছে গিয়েছিলাম। আমাকে কেউ সাহায্য করেননি। যাক, শেষ পর্যন্ত সত্যের জয় হলো। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।’

নিপুণ আরও বলেন, জয় পাওয়ার পর তার প্রধান লক্ষ্য- চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সবার জন্য কাজ করা। এ ছাড়া এফডিসিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, সদ্য অনুষ্ঠিত শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে ভোট কেনার অভিযোগ তোলেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নিপুণ। এ ছাড়া আরও কিছু অভিযোগ তুলে জায়েদের পদ বাতিলের আবেদন করেন নিপুণ। এই পদে পুনরায় নির্বাচনও দাবিও করেন এই অভিনেত্রী।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক আজ শনিবার বিকেল ৫টায় এফডিসিতে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খান ও কার্যকরী সদস্য পদে চুন্নুর নির্বাচন আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ নিয়ে বৈঠকে বসে আপিল বোর্ড।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন- আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান সোহানুর রহমান সোহান, বোর্ডের সদস্য মোহাম্মদ হোসেন, দুই নির্বাচন কমিশনার জাহিদ হোসেন ও বি এইচ নিশান এবং অভিযোগকারী নিপুণ। তবে এ বৈঠকে দুই অভিযুক্ত উপস্থিত ছিলেন না। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান।

আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান সোহানুর রহমান সোহান ব‌লেন, ‘নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমাদের কাছে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ এসেছিল। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা যথাযথ সাক্ষ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করেছেন। এজন্য দুপক্ষকে নিয়েই বৈঠক ডাকা হয়। সবকিছু বিবেচনা করে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ আমাদের কাছে সত্য মনে হয়েছে। সেজন্য তার প্রার্থিতা বাতিল করে নিপুণকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হলো।’