ArabicBengaliEnglishHindi

পেপিনোমেলন চাষে সফলতার দ্বারপ্রান্তে তাজুল


প্রকাশের সময় : মার্চ ৭, ২০২২, ১:৪৯ অপরাহ্ন / ১৮৪
পেপিনোমেলন চাষে সফলতার দ্বারপ্রান্তে তাজুল

আবু জাফর বিশ্বাস ->>

যশোরের চৌগাছা উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের বড়খানপুর গ্রামের ৬৫ বৎসর বয়সী চাষী তাইজুল ইসলাম বিদেশি ফল ‘পেপিনো মেলন’ চাষে সফলতা অর্জন করেতে যাচ্ছেন।

চাষী তাইজুল ইসলাম পার্শ্ববর্তী গ্রামের সেলিমের কাছ থেকে উদ্বুদ্ধ হয়ে পরীক্ষামূলক ভাবে ৩৩ শতক জমিতে পেপিনো মেলন চাষ করেছেন। প্রবাসী সেলিম শখের বসে কয়েক শতক জমিতে পেপিনো চাষ করেন, তাইজুল তার কাছ থেকে চারা ক্রয় করে ইউটিউবে চাষ পদ্ধতি দেখে পরিচর্চা শুরু করেন। চারা রোপনের ২ মাসের মধ্যে তার প্রতিটা গাছে ফল এসেছে। ফলের ওজন ৩ থেকে ৫শ গ্রাম। তিনি বলেন বর্তমানে তার ক্ষেতে প্রায় ৫০ মণ পেপিনো মিলান রয়েছে। যা বিক্রয় করতে পারলে তিনি লাভবান হবেন বলে মনে করেন।

তাজুল ইসলাম বলেন পেপিনো আমি খেয়েছি এবং উপকার পেয়েছি। খেতেও ভালো, তাই আগ্রহ করে এই ফল চাষ করেছি। আর এই ফল চাষে খরচ একদম কম। শুধু জৈব সারেই ভালো ফলন এসেছে। প্রথম বারেই সফল হওয়ায় তিনি আরও বেশী করে চাষ করতে চান এবং সম্ভাবনাময় এই ফল বাণিজ্যিক ভিত্তিতে চাষ করার জন্য সরকারী ভাবে আর্থিক সহযোগীতা কামনা করেন।

চৌগাছা উজেলার কৃষি কর্মকর্তা সমেরণ বিশ্বাস জানান অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ বিদেশি এই ফল পেপিনো মেলন। যাতে আছে ভিটামিন-এ, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, এন্টিওক্সিডেন্ট, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এবং ক্যান্সার প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রনে কার্যকরি ভূমিকা রাখে এ ফল।