ArabicBengaliEnglishHindi

বিএনপি একটি সন্ত্রাসী সংগঠন: শেখ পরশ


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৭, ২০২২, ৮:৪৫ অপরাহ্ন / ৫৩
বিএনপি একটি সন্ত্রাসী সংগঠন: শেখ পরশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ->>
বিএনপির সৃষ্টি হয়েছিল বাংলাদেশকে একটা ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য। এই জন্যই বিএনপিকে জনবিচ্ছিন্ন একটা সন্ত্রাসী সংগঠন বলে মন্তব্য করেছেন যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

 

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শনিবার (২৭ আগস্ট) রাজধানীর উত্তর মুগদার মদিনাবাগে ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভা ও অসহায়-দুঃস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ দাবি তোলেন তিনি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানা ও সঞ্চালনা করেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজা।

বিএনপিকে জনবিচ্ছিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠন দাবি করে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেন, তারা বিভিন্ন সময় হয়তো বিভিন্ন পন্থায় ক্ষমতা দখল করেছে, কিন্তু গণমানুষের দল হয়ে উঠতে পারে নাই। কারণ তারা গণমানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে অনুপস্থিত, কিন্তু মানুষের অধিকার হরণে পারদর্শী। তারা মানুষের ভোটের অধিকার আদায়ের জন্য আন্দোলন করে না, তারা নিজেদের দলীয় স্বার্থের জন্য এদেশের জনগণকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসতে চায়। যাতে করে এদেশকে আবারও জঙ্গি এবং দুর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রে পরিণত করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ২০০১ সালের পরে বিএনপি-জামায়াত নানা ধরণের ষড়যন্ত্র, নির্যাতন, গুম, হত্যা করেও আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মীদের আদর্শ থেকে টলাতে পারেনি। নানা ধরণের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালিয়ে গেছে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডে জিয়াউর রহমানের সম্পৃক্ততা, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় তারেক রহমানসহ বিএনপির একাধিক নেতা জড়িত, ২০০৫ সালের দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলা, ২০১৪ সালের আগুন সন্ত্রাস ও নিরীহ মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করাই প্রমাণ করে বিএনপি একটি জনবিচ্ছিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠন। শুধু আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীই নয়, বিএনপি-জামায়াতের হাত থেকে গণমাধ্যম কর্মীরাও রক্ষা পায় নাই। তাদেরকেও নানাভাবে নির্যাতন, গুম, খুন করেছে।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

 

তিনি আরও বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে বিশ্ব মন্দায় জিনিস পত্রের দাম বৃদ্ধিতে আপনাদের যে কষ্ট হচ্ছে সেটা আমরা উপলব্ধি করি। খুব শিগগিরই বঙ্গবন্ধুকন্যা রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে পারবো। আপনারা বঙ্গবন্ধুকন্যার প্রতি আস্থা রাখেন এবং তার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ুর জন্য দোয়া করবেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, যার নেতৃত্বে আমরা স্বাধীনতা পেলাম, সেই হিমালয়সম মানুষ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের সাথে জিয়াউর রহমান জড়িত। ঠিক সেভাবে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ড সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি তারেক জিয়া।

এর আগে বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সকাল ৯টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে কবির সমাধি সৌধে এবং ১৯৯৫ সালে বিএনপির সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত যুবলীগ নেতা শেখ বদর উদ্দিন বদু’র ২৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সকাল ১০টায় জুরাইন কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন করে যুবলীগ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন— যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. মামুনুর রশীদ, মঞ্জুর আলম শাহীন, মো. রফিকুল ইসলাম, মো. হাবিবুর রহমান পবন, মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর রহমান বাদশা, ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. সাদ্দাম হোসেন পাভেল, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. শামছুল আলম অনিকসহ কেন্দ্রীয় মহানগর ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।