ArabicBengaliEnglishHindi

মাহির নামে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন প্রযোজক জেনিফার


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৩, ২০২২, ৭:১০ অপরাহ্ন / ১৮৭
মাহির নামে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন প্রযোজক জেনিফার

শোবিজ ডেস্ক ->>
বর্তমান সময়ের চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তার অভিনীত ‘আশীর্বাদ’ সিনেমাটি মুক্তির মিছিলে রয়েছে। এদিকে সিনেমাটিকে কেন্দ্র করে মাহি ও প্রযোজকের বাকযুদ্ধ যেন থামছেই না। বিষয়টি নিয়ে অনেকেই বিব্রত হচ্ছেন। বিশেষ করে প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌসের লাগামহীন মন্তব্যে অনেকেই অস্বস্তি প্রকাশ করেছেন। মাহির বিরুদ্ধে তিনি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

 

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

 

এ দিকে ‘ও মাই লাভ’ সিনেমার প্রযোজক জাহাঙ্গীর শিকদারও মাহির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছেন বলে খবরে প্রকাশ।

‘আশীর্বাদ’ সিনেমার মুক্তিকে সামনে রেখে সংবাদ সম্মেলন করেন জেনিফার। সেখানে সিনেমার নায়ক রোশান ও নায়িকা মাহিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। উল্টো সংবাদ সম্মেলনে রীতিমত মাহিকে তুলোধুনো করেন প্রযোজক। এরপর পাল্টা জবাব দিতে সংবাদ সম্মেলন করেন মাহি। সেসময় তিনি বলেন, প্রযোজক ৬০ লাখ টাকা অনুদান পেলেও খরচ করেছেন বড় জোর ২৫ লাখ টাকা।

মাহির বক্তব্যে সায় দেন সিনেমার পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক ও রোশান। এরপরই মূলত লাগামহীন বক্তব্য দিতে দেখা যায় জেনিফারকে। তিনি মাহির ব্যক্তিজীবন নিয়েও কথা বলেন।

অন্যদিকে ‘ও মাই লাভ’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য মাহিয়া মাহি নগদ ১০ লাখ টাকা পারিশ্রমিক এবং এক লাখ টাকা পোশাক বাবদ নিয়েছিলেন। পরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, একাধিকবার গল্প শোনার পর তিনি সিনেমাটিতে চুক্তিবদ্ধ হন। কিন্তু শুটিংয়ের আগের দিন মাহি গল্প পরিবর্তন ও দ্বিতীয় নায়িকাকে সিনেমা থেকে বাদ দিতে বলেন। সম্মত না হলে তিনি সিনেমাটিতে কাজ করায় অপারগতা প্রকাশ করেন। এরপর শিল্পী সমিতির তদানীন্তন সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের মধ্যস্থতায় মাহি কয়েক দফায় পাঁচ লাখ টাকা ফেরত দিলেও বাকি ছয় লাখ টাকা ফেরত দেননি।

জাহাঙ্গীর শিকদার এই ছয় লাখ টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য মামলা করবেন বলে জানান।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে বিব্রত হয়ে চিত্রনায়ক জয় চৌধুরী ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘প্রযোজক পরিচালক তারা আর্টিস্টদের বাবা-মা। নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি, ভালো লাগা, খারাপ লাগা থাকতেই পারে, সেটা সব পরিবারেই হয়। কিন্তু একজন প্রযোজক হয়ে অভিনেত্রীর পারসোনাল বিষয় নিয়ে এতো বাজে কথা বলে এ্যাটাক করা দৃষ্টিকটু ও ঘৃণিত কাজ বলে মনে করি। অনেক সিজনাল প্রযোজক স্যার/ ম্যাডামরা আজকাল আর্টিস্টদের ঘাড়ে পাড়া দিয়ে, ছোট করে কথা বলে ভিডিও বার্তা দিয়ে নিজেদের পাবলিসিটি ভালোই করছেন। কিন্তু একজন আর্টিস্ট সত্তা হিসাবে আমার কাছে বিষয়টি ভালো লাগেনি।’

চলচ্চিত্র বোদ্ধাদের প্রশ্ন মাহি-জেনিফারের বাকযুদ্ধে চলচ্চিত্র শিল্প কতটা লাভবান হচ্ছে? অন্যদিকে প্রযোজক-শিল্পীই বা কতটা লাভবান হচ্ছেন?