ArabicBengaliEnglishHindi

মির্জাপুরে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা ২০ বছরের তরুণী


প্রকাশের সময় : জুন ১৩, ২০২২, ৮:৪৪ অপরাহ্ন / ৫৯
মির্জাপুরে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা ২০ বছরের তরুণী

সবুজ খান ->>

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার বাঁশতৈল ইউনিয়নের পশ্চিম বংশীনগর গ্রামে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ২০বছরের তরুণী । ধর্ষণের পর মেয়েটি এখন অন্তঃসত্ত্বা।

অভিযোগ: চার মাস আগে একই গ্রামের কাইতলা বাজারে মৃত ফঠু মিয়ার ছেলে জলিল মিয়ার (৫৫) দোকানে কেনাকাটা করতে যায় রুনা আক্তার (২০)। এ সময় মিথ্যে প্রলোভন দেখিয়ে জলিল রুনাকে একই বিল্ডিংয়ের উপরের ঘরে নেয় এবং ধর্ষণ করে। ঘটনাটি কারো কাছে বলে দিলে বাপ-ভাই ও পরিবারকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় জলিল।

জলিল মিয়ার ধর্ষণের শিকারে এখন চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা এই কিশোরী। ঘটনাটি জানাজানি হলে সামাজিকভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করলেও কোন সুরাহা হয়নি। এ বিষয়ে ভিকটিমের আদালতে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান রুনার বাবা আলম মিয়া।

কথা হয় একই এলাকার ভুক্তভোগী দেলোয়ার হোসেনের সাথে। দেলোয়ার হোসেন জলিলের আপন ভাইরার ছেলে। দেলোয়ারকে বিয়ে করিয়ে তাদের উকিল বাবাও হয় এই জলিল মিয়া। একপর্যায়ে উকিল মেয়ের সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয় জলিল।

দেলোয়ার হোসেন আরও বলেন, দু’জন সন্তান রেখে ছয় বছর আগে জলিল তার স্ত্রীকে নিয়ে উধাও হয়। সে সময় দেলোয়ার থানায় একটি ডায়েরিও করেন। জলিল এলাকায় ফিরলেও তার স্ত্রী এখনো নিরুদ্দেশ, জলিল কী তাকে বাঁচিয়ে রেখেছে না মেরে ফেলেছে তাও জানেনা এই দেলোয়ার

শোনা যায়, গেল কয়েক বছর আগেও জলিল দিনমজুরের কাজ করত। বাঁশ দিয়ে টালাইয়ের কাজ করে সংসার চালালেও রাতারাতি সে বিলাসবহুল বাড়ি ও কোটি কোটি টাকার মালিক বনে গেল কিভাবে বিষয়টি খতিয়ে দেখার দাবি এলাকাবাসীর।

একাধিকবার জলিলের বাড়িতে গেলেও তার সাথে কথা বলা যায়নি। কৌশলে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এটা মিথ্যে বানোয়াট। তাদের কাছে টাকা পাওনা থাকায় তা যেন না দিতে হয় এজন্য তারা এ পায়তারা চালাচ্ছে। তবে জলিল সম্পর্কে তার মেয়ে কল্পনার সাথে কথা বললে সে নিউজ না করতে সাংবাদিকদের অনুরোধ করেন।মির্জাপুরে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা ২০বছরের তরুণী