ArabicBengaliEnglishHindi

মৃত ব্যক্তিকে ভালো-মন্দ বলায় কী বলেছেন নবিজী (সা.)?


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৭, ২০২২, ১০:২৬ অপরাহ্ন / ১১৩
মৃত ব্যক্তিকে ভালো-মন্দ বলায় কী বলেছেন নবিজী (সা.)?

ইসলাম ডেস্ক-

কেউ মারা গেলে তার প্রশংসা করায় রয়েছে বিশেষ উপকার। আবার কেউ যদি মৃত ব্যক্তির খারাপ গুণ বর্ণনা করে তবে এর পরিণামও খুবই খারাপ। এজন্য কেউ মারা গেলে তার খারাপ গুণ বলে বেড়ানো থেকে বিরত থাকা জরুরি। ব্যক্তির ভালো গুণ প্রকাশ করায় রয়েছে কল্যাণ ও উপকারিতা। দুটি বিষয়ই ওঠে এসেছে হাদিসের বর্ণনায়। বিষয় দুটি সম্পর্কে নবিজী (সা.) কী বলেছেন?

মৃত ব্যক্তির জন্য ভালো প্রশংসায় রয়েছে মুক্তি আর মন্দ গুণ বর্ণনায় রয়েছে মারাত্মক ক্ষতি তথা চিরস্থায়ী জাহান্নাম। হাদিসে বিষয় দুটি এভাবে ওঠে এসেছে-
হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, ‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছ দিয়ে একটি জানাজা গেলো। এরপর তার উত্তম প্রশংসা করা হলো, উত্তম প্রশংসা মুখে মুখে হতে থাকলো; তারা বললো- আমাদের জানা মতে সে আল্লাহ ও তাঁর রাসুলকে ভালোবাসতো।

এরপর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (তিনবার) বললেন- ‘অপরিহার্য হয়ে গেল। অপরিহার্য হয়ে গেল। অপরিহার্য হয়ে গেল।’

এরপর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছ দিয়ে আরও একটি জানাজা নিয়ে যাওয়া হলো। ওই জানাজায় নিন্দা বা মন্দ বলা হলো। (ওই জানাজার নিন্দাও মুখে মুখে লেগে থাকলো। তারা বললো লোকটি আল্লাহর দ্বীনের ব্যাপারে কতই না খারাপ ছিল!)

এরপর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (তিনবার) বললেন, অপরিহার্য হয়ে গেল। অপরিহার্য হয়ে গেল। অপরিহার্য হয়ে গেল।
এবার হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বললেন, হে আল্লাহর রাসুল! আপনার জন্য আমার বাবা-মা কোরবান হোক। আপনি একটি জানাজার প্রশংসা করায় তিনবার বললেন- ‘অপরিহার্য হয়ে গেল’। আবার অপর জানাজায় মন্দ বলায়ও আপনি তিনবার বললেন- ‘অপরিহার্য হলে গেল’। এর মর্মার্থ কী?

এবার রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, ‘তোমরা যার উত্তম প্রশংসা করলে- তার জান্নাত অপরিহার্য হয়ে গেল। আর তোমরা যার নিন্দা করলে- তার জন্য জাহান্নাম অপরিহার্য হয়ে গেল। (এরপর নবিজী আরও তিনবার বললেন)- আর তোমরা পৃথিবীতে আল্লাহর সাক্ষী, তোমরা পৃথিবীতে আল্লাহর সাক্ষী, তোমরা পৃথিবীতে আল্লাহর সাক্ষী। (মুসলিম)

হাদিসের আলোকে শিক্ষা ও করণীয়

কোনো মুমিন মুসলমান মারা গেলে, তার প্রশংসা করা; ভালো গুণগুলো বলা উত্তম। এতে তার জন্য আল্লাহ তাআলা জান্নাতের ফয়সালা করে দেবেন। আর যদি কোনো মন্দ ব্যক্তি মারা যায় তবে তার ব্যাপারে কোনো কিছু বলা থেকে বিরত থাকাই উত্তম। মহান আল্লাহ তাআলাই তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন। সুতরাং দুনিয়ায় প্রতিটি মানুষের এমন কাজ করা জরুরি। যাতে মৃত্যুর পর মানুষ তার প্রশংসা করতে পারে। এ প্রশংসাই মানুষকে জান্নাতে নিয়ে যাবে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়ার জীবনে উত্তম কাজ করার তাওফিক দান করুন। মন্দ কথা ও কাজ থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। দুনিয়া ও পরকালে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের তাওফিক দান করুন। আমিন।