ArabicBengaliEnglishHindi

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে প্রতারণার চেষ্টা কালে ভুয়া ওসি গ্রেপ্তার


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৪, ২০২২, ৯:৪৯ অপরাহ্ন / ১৭৮
শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে প্রতারণার চেষ্টা কালে ভুয়া ওসি গ্রেপ্তার

শেরপুর জেলা প্রতিনিধি ->>
শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতীতে পুলিশের ওসি পরিচয়ে প্রতারণার করার সময় আনছার আলী উরফে জাহাঙ্গীর (৪৫) নামে এক পুলিশের ভুয়া ওসিকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভুয়া ওসি আনছার আলী শেরপুর সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের কুঠুরাকান্দা ছনকান্দা গ্রামের উমেদ আলীর ছেলে। ঝিনাইগাতী থানার কাংশা বাজার এলাকায় চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার বাদীর সাথে প্রতারণাকালে তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেন, ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই ফরিদ আহমেদ। থানা পুলিশ সুত্রে জানা গেছে , গত ৬ অক্টোবর বিকেলে কাংশা বাজার এলাকায় মোটরসাইকেল আটকিয়ে ঈমান আলী উরফে ফেকাসু (৪৫) নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষ। একটি খাস জমির দখল নিয়ে পূর্ব থেকে চলে আসা বিরোধকে কেন্দ্র করে ওই হত্যাকাণ্ড ঘটে।

ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই এজাহার নামিয় ৪ নারী ও ৪ পুরুষ সহ মোট ৮ আসামীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকে গ্রেপ্তার এড়াতে অধিকাংশ আসামী পলাতক রয়েছেন। এই হত্যা মামলাকে কেন্দ্র করে আনছার আলী গত কয়েকদিন আগে হত্যা মামলার বাদীর বাড়িতে এসে নিজেকে কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানার ওসি তদন্ত বলে পরিচয় দেয়ার পাশাপাশি তাকে সিআইডি থেকে এই হত্যা মামলাটি গোপন তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি একাই অতি গোপনে মামলাটি তদন্ত করবেন।

তার বিষয়ে পুলিশ সহ কারো কাছে কিছু বলতে নিষেধ করে তার সাথে সব বিষয়ে গোপনে যোগাযোগ রাখতে এবং তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে বলেন বাদীকে। ইতিমধ্যে একাধিকবার সে বাদীর বাড়িতে এসে তাকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেন। ১২ অক্টোবর বুধবার দিবাগত রাতে এস‌আই ফরিদ আহমেদ মামলার তদন্ত কাজে ওই এলাকায় গিয়ে অপরিচিত আনছার আলীকে অট্রোতে ঘোরাঘুরি করতে দেখে তাকে চ্যালেঞ্জ করেন।

এতেই তার পরিচয় সহ প্রতারণার বিষয়টি বেরিয়ে আসে। ঝিনাইগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল আলম ভুঁইয়া সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আনছার আলী উরফে জাহাঙ্গীর নামের ওই ব্যক্তি প্রতারণার উদ্দেশ্যে নিজেকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে একটি চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার বাদী সহ অপরাপরকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে আসছিল। তাকে আটক করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।