ArabicBengaliEnglishHindi

সাংবাদিক ইমরান টিটুর বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন


প্রকাশের সময় : জুলাই ৩১, ২০২২, ৯:০০ অপরাহ্ন / ২৫০
সাংবাদিক ইমরান টিটুর বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন

বরগুনা প্রতিনিধি ->>
একাত্তর টিভি ও রাইজিং বিডি.কমের বরগুনা প্রতিনিধি ইমরান টিটুর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বেতাগী উপজেলার সাংবাদিকরা। রবিবার (৩১ জুলা) বেতাগী উপজেলা পরিষদের সামনে বেতাগী প্রেসক্লাবের উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন।

মসজিদ নির্মাণ কাজে আর্থিক সাহায্যের আবেদন

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, মুক্ত গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠার প্রধান বাঁধা হচ্ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন। এ আইন দূর্নীতিবাজদের এক শক্তিশালী হাতিয়ার। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগের ফলে অপরাধীদের বিচার না হয়ে উল্টো সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

অনতিবিলম্বে এ আইন বাতিলের দাবি জানান সরকারের কাছে।

বক্তব্য বেতাগী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইরান বলেন, সাংবাদিক ইমরান টিটুকে মিথ্যা মামলা দিয়ে দমন করা যাবে না। তার সত্যের কলম চলবে। বরগুনা সহ সারা দেশের সাংবাদিকরা তার পাশে রয়েছে। দুর্নীতির নিউজ প্রকাশ করেও মামলা খেতে হয়, এমন সময় দেশের সাংবাদিক সমাজ এখন পার করছে। সাংবাদিক নেতারা এর থেকে উত্তরণের উপায় না নিলে চরম মূল্য দিতে হবে।

বেতাগী প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন ঢালী বলেন, সাংবাদিক দমনের এই কাল আইন দ্রুত বাতিলের সিদ্ধান্ত না নিলে আমরা কঠোর আন্দোলন করবো।

চলতি বছরের ১ মার্চ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী ইয়ার উদ্দিন খলিফার মাজারের দুর্নীতি নিয়ে বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ইমরান হোসেন টিটুর অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রচার হয় একাত্তর টিভিতে। মাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও মির্জাগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মল্লিকের ভাগ্নে বাদল (বাক্স বাদল) প্রতিবেদনটি না করার জন্য একাত্তর টেলিভিশনের বরগুনা অফিসে এসে ঘুষ দিতে চায় ইমরান হোসেনকে। পরে ঘুষ দিতে চাওয়ার ভিডিওসহ প্রতিবেদনটি একাত্তর টিভিতে প্রচার হলে বিভিন্ন মহলে নিন্দার ঝড় ওঠে। এরপর এপ্রিল মাসের ৫ তারিখ বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন ঘুষ দিতে আসা বাদল ফকির। এরপর বরগুনা ও পটুয়াখালীর বিভিন্ন উপজেলার সাংবাদিকরা ইমরান টিটুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে কর্মসূচির ডাক দেন।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করে উপস্থিত ছিলেন বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়ন, বরগুনা রিপোটার্স ইউনিটি, বেতাগী রিপোর্টার্স ইউনিটি, মির্জাগঞ্জ প্রেসক্লাব।