ArabicBengaliEnglishHindi

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও নির্মাণ হয়নি ফুলবাড়ী বাইপাস সড়ক


প্রকাশের সময় : জুলাই ১৬, ২০২২, ৭:৪৫ অপরাহ্ন / ৫৮
স্বাধীনতার ৫০ বছরেও নির্মাণ হয়নি ফুলবাড়ী বাইপাস সড়ক

দিনাজপুর প্রতিনিধি ->>
দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে স্বাধীনতার ৫০ বছর পেরিয়ে গেলেও নিমার্ণ হয় নি ফুলবাড়ী শহরে বাইপাস সড়ক। গত ৪ বছরে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত প্রায় ৫০ জন ও আহত প্রায় ৩০ জন।

ফুলবাড়ী শহরের ভিতর দিয়ে একই রাস্তায় আন্তজেলা ও দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল করায় বাড়ছে যানযট ও সড়ক দূর্ঘটনা। এদিকে ফুলবাড়ী শহরের মাঝ দিয়ে দিনাজপুর গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়ক হওয়ায় একই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে ভারি যানযাহন। এই সেই সাথে ছোট যানবাহনগুলি বেপরোয়া ভাবে চলাচল করছে।

স্কুল কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা রাস্তা পারাপার হতে গিয়ে অনেকে দূর্ঘটনায় আহত ও নিহত হচ্ছে। এত উৎকষ্ঠায় দিন কাটে অভিভাবকদের।

ফুলবাড়ী পৌর শহরের বাহিরে বাইপাস না থাকায় দিনাজপুর গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কটি ফুলবাড়ী পৌর শহরের মাঝ দিয়ে রয়েছে। এই রাস্তা দিয়ে দিনাজপুর, ঠাকুরগাও ও পঞ্চগড় জেলা থেকে এবং নীলফামারী সৈয়দপুর ও পার্বতীপুর হয়ে ফুলবাড়ী হয়ে ঢাকা মূখী চলাচল করছে।

এছাড়া ঢাকা, রাজশাহী, বগুড়া ও গাইবান্ধ থেকে ছেড়ে আসা যানবাহনগুলি ও চলছে এ সড়ক দিয়ে। সেই সাথে পৌর শহরে রিকশা-ভ্যান, অটোরিক্সা, সিএনজি, ছোট বড় শত শত যানবাহন চলাচলা করে এই রাস্তা দিয়ে। এই আঞ্চলিক মহাসড়টির কোন বাইপাস সড়ক নেই।

এর পাশ দিয়ে ফুলবাড়ী সরকারী কলেজ, ফুলবাড়ী মহিলা ডিগ্রী কলেজ, ফুলবাড়ী শহীদ স্মৃতি আদর্শ কলেজ, দারুসুন্নাহ ফাজিল মাদ্রাসা, ফুলবাড়ী জিএম পাইল উচ্চ বিদ্যালয়, ফুলবাড়ী বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সহ একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে ফুলবাড়ী উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয় ফুলবাড়ী সাব রেজিষ্ট্রার অফিস, ফুলবাড়ী পৌরসভা, ফুলবাড়ী থানা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের কার্যালয় ফুলবাড়ী, ফুলবাড়ী ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, মাইকোয়েভ স্টেশন (টিএনটি) সহ বেশ কিছু সরকারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। যার ফলে প্রতিদিন এ রাস্তা দিয়ে হাজার হাজার যানবাহনের পাশাপাশি শত শত পথচারী ও শিক্ষার্থীরা এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে থাকে।

এ রাস্তাটি সর্বদায় ব্যস্ত থাকলেও রাস্তার উভয় পাশ্বে রাস্তার জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে দোকান পাট, হোটেল রেস্তোরা সহ ছোট বড় একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এই কারণে প্রতিদিনে ফুলবাড়ী পৌর শহরের ঢাকামোড়, নিমতলামোড়, উর্বসী সিনেমাহল মোড়, ছোট যমুনা ব্রীজের বড়তলী মোড়, হাসপাতাল মোড় সহ বিভিন্ন এলাকায় যানযট লেগে থাকে। এতে প্রতিদিন ঘটছে ছোট বড় সহ সড়ক দূর্ঘটনা।

এক সময় ফুলবাড়ীতে ট্রাফিক পুলিশ থাকলেও গত ২০ বছরে কোন ট্রাফিক পুলিশ নেই। ঢাক মোড়ে , নিমতলা মোড়ে ও ফুলবাড়ী সরকারি কলেজ মোড়ে তিনটি ওভার ব্রীজ নির্মাণ করা অতি প্রয়োজন। কিন্তু কে করবে? যাদেরকে দিয়ে ফুলবাড়ীর উন্নয়ন হওয়ার কথা তারা সুধু নিজের আখের গোছানো ছাড়া তাদের আর কোন চিন্তা নাই। শ্বশান ঘাটিতে কোটি টাকা ব্যয়ে এলজিইডি থেকে নির্মাণ করা হয়েছে ব্রীজ। সেই ব্রীজটি দিয়ে স্থানীয় লোকজন ছাড়া অন্য কেউ পারাপার হয় না। ফুলবাড়ী উপজেলা একটি মডেল উপজেলা। এই উপজেলাকে সাব-ডিভিশন জেলা হিসাবে বাস্তবায়ন করার প্রস্তুতি চলছিল কালের আবর্তনে রাজনৈতক পট পরিবর্তনের কারণে আর ফুলবাড়ীকে জেলা রুপান্তিরিক করা হয় নি।

বর্তমান সরকারের আমলে ফুলবাড়ীতে তেমন কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি।

ফুলবাড়ী ২৫০ বছরের ঐহিত্যবাহী উপজেলা। এই উপজেলায় তেভাগা আন্দোলন থেকে এবং বর্তমান রাজনৈতিক মাঠ থেকে অনেক নেতার জন্ম হলেও সবাই ফুলবাড়ীর উন্নয়নের কথা বললেও তেমন কোন উন্নয়ন ঘটেনি এই উপজেলার।

১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের ৭নং সেক্টরের জুনিয়ার কমান্ডিং অফিসার ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব মনছুর আলী সরকার ফুলবাড়ীর উন্নয়নে বেশ কিছু অবদান রেখেছেন। তিনি যা করেছেন তাই বর্তমানেও রয়েছে কিন্তু তিনি ছাড়া নতুন করে তেমন কোন উন্নয়নে ভূমিকা রাখেনি কেউ।